Friday, January 21, 2022

‘পুষ্পা’ হিট হতেই পারিশ্রমিক বাড়ালেন রাশমিকা!

অনলাইন ডেস্কঃ ‘পুষ্পা’র নজিরবিহীন সাফল‍্যের পর জনপ্রিয়তার...

অন্তর্জালে ফের উষ্ণতা ছড়ালেন শাহরুখ কন্যা

অনলাইন ডেস্কঃ বলিউডে এখনো সুহানা খানের আলাদা...

এবার করোনায় আক্রান্ত শ্রীলেখা মিত্র

অনলাইন ডেস্কঃ টলিপাড়ায় ক্রমেই চওড়া হচ্ছে করোনার...

রাবিতে ছিনতাই ঠেকাতে গাড়িতে ‘বিশেষ স্টিকার’ ব্যবহারের নির্দেশনা

শিক্ষারাবিতে ছিনতাই ঠেকাতে গাড়িতে ‘বিশেষ স্টিকার’ ব্যবহারের নির্দেশনা

রাবি প্রতিনিধিঃ বহিরাগত ও ছিনতাইকারী ঠেকাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্টদের পরিবহনে বিশেষ স্টিকার ব্যবহার করার নির্দেশনা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই স্টিকারে প্রক্টরের সই রয়েছে। তবে নির্দেশনার পরও ব্যক্তিগত পরিবহনে বিশেষ স্টিকার ব্যবহার করছেন না শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তারা। এতে ছিনতাই ঠেকাতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

গত এক সপ্তাহে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে চারটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ বুধবার (৫ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালেয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে ছিনতাইয়ের শিকার হন তাছনিমা নামের এক শিক্ষার্থী।

ক্যাম্পাসে বহিরাগত ঠেকাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব গাড়ি বিশেষ স্টিকারের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর লিয়াকত আলী। সোমবার (৩ জানুয়ারি) এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

প্রক্টর বলেন, বহিরাগতদের অবাধ প্রবেশের কারণেই বারবার ছিনতাইয়ের শিকার হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। বেশিরভাগ ছিনতাইয়ের ক্ষেত্রে দেখা গেছে, ছিনতাই করে মুহূর্তের মধ্যেই মোটরসাইকেলে পালিয়ে যান ছিনতাইকারীরা। বহিরাগত বাইকারদের শনাক্ত করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের জন্য প্রক্টর স্বাক্ষরিত বিশেষ স্টিকার ব্যবহারের জন্য বলা হয়েছে। মাত্র ৪০ টাকায় প্রক্টর কার্যালয় থেকে স্টিকার সংগ্রহ করা যাবে বলেও জানান প্রক্টর।

তিনি আরও বলেন, সিল সংগ্রহকারীকে অবশ্যই তাদের আইডি কার্ড ও গাড়ির বৈধ কাগজপত্র দেখিয়ে সিল সংগ্রহ করতে হবে। সিলে প্রত্যেকের জন্য স্বতন্ত্র নম্বর দেওয়া থাকবে।

ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে উল্লেখ করে প্রক্টর লিয়াকত আলী বলেন, ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা, যথেষ্ট পরিমাণ সিসি ক্যামেরা আছে; তবে তার সংখ্যার বাড়ানোর কাজ চলছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা ও কাউকে সন্দেহজনক মনে হলে জিজ্ঞাসাবাদের আওতায় আনা হচ্ছে।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles