17.8 C
New York
শুক্রবার, মে ১৭, ২০২৪
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনিুষ্ঠিত

আপেল মাহমুদ রাঙ্গা, বাগমারা প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়ারুজ্জামান লিটন বলেছেন, ‘রাজশাহীতে বিএনপি সেমিফাইনাল খেলার ঘোষণা দিয়েছিল, সাত দিন চেষ্টা করেও তেমন লোক জড়ো করতে পারেনি। আমরা ড্রোনে তোলা ছবিতে দেখেছি, বিএনপির সমাবেশের মাঠ ছিল ফাঁকা ফাঁকা। এই বাহাদুরি নিয়ে আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গিয়ে ফাইনাল খেলবেন এবং তারপর থেকে আপনাদের (বিএনপি) কথামতো দেশ চলবে-এটি মুর্খের স্বর্গে বাস করা ছাড়া আর কিছুই নয়। বিএনপির এই দুঃস্বপ্ন কখনো পূরণ হবে না। ১০ ডিসেম্বর আমাদের নেতাকর্মীরা প্রস্তুত থাকবেন, বিএনপি কোন অরাজকতা সৃষ্টি করতে চাইলে তাৎক্ষণিক দাতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে।

রবিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন-২০২২ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। দীর্ঘ ৭ বছর পর উৎসব মুখর পরিবেশে রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

শুরুতে জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বেলুন-ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। এরপর পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গম্ভীরা।

সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন উদ্বোধক বাংলাদেশ কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. উম্মে কুলসুম স্মৃতি, এমপি।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের রায়ে ক্ষমতায় আছে। আমরা কারো দয়ায় ক্ষমতায় নেই। বিশ্বের উন্নত দেশে যেভাবে ক্ষমতাশীন সরকার ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়, সেইভাবে বাংলাদেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী নির্বাচনে বিএনপি যদি না আসে তাহলে, বিএনপিকে তার খেসরাত দিতে হবে।

এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, তারেক জিয়া লন্ডনে বসে দিনের পর দিন ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করে যাচ্ছে। একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর ছেলে, যিনি নিজেও প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখেন, যে স্বপ্ন কোনদিন পূরণ হবে না। সেই তারেক জিয়া বিশ্বকাপ ফুটবলে বড় জুয়ারী হিসেবে নিজের নাম লিখিয়েছে, এটা কতবড় লজ্জার।

রাসিক মেয়র লিটন আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। বছরে চার কোটি মেট্রিক টন খাদ্য শস্য উৎপাদন হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবার আন্তরিক প্রচেষ্টায় কৃষক-শ্রমিকের ঘামে-শ্রমে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের এই অগ্রযাত্রাকে কেউ রুখতে পারবে না।

বিশেষ অতিথি হিসেবে রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়নের সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়ে বাগমারা সহ সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যোগাযোগ, শিক্ষা-চিকিৎসা, কৃষি প্রতিটি ক্ষেত্রে যুগান্তকারী পরিবর্তন ঘটেছে।

রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের আহবায়ক অধ্যক্ষ তাজবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য বেগম আখতার জাহান, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আব্দুল লতিফ তারিন, সাবেক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপিকা জিনাতুন নেসা তালুকদার, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমান, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য আদিবা আঞ্জুম মিতা, এড. শামীমা আক্তার খানম, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি কৃষিবিদ মোঃ সাখাওয়াত হোসেন সুইট, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিপ্লব, কৃষিবিদ হাবিবুর রহমান মোল্লা, দপ্তর রেজাউল করিম রেজা, কৃষিপণ্য বিষয়ক সম্পাদক আজমল হোসেন, সদস্য রবিউল ইসলাম বাবু ও সদস্য আবুল খায়ের নাঈম প্রমুখ।

এরআগে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. উম্মে কুলসুম স্মৃতি।

বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, সহ-সভাপতি মতিউর রহমান টুকু, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল, সিরাজ উদ্দীন সুরুজ, মকবুল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আল মামুন প্রামানিক, জাহাঙ্গীর আলম, দপ্তর সম্পাদক নূরুল ইসলাম, সহ দপ্তর সম্পাদক আব্দুল জলিল, আইন বিষয়ক সম্পাদক মাজেদুর রহমান, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক আশিকুর রহমান সজল, সদস্য হাচেন আলী, মহিলা লীগের সভাপতি কহিনুর বানু, সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বেগম, কৃষক লীগের সভাপতি মহসীন আলী, যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম মীর, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা উজ্জল হোসেন, জহুরুল ইসলাম, নাদিরুজ্জামান মিলন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জহুরুল ইসলাম বাবু প্রমুখ। উক্ত সম্মেলন রাজশাহী জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বসম্মতিক্রমে রাজশাহী জেলা কৃষকলীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যক্ষ তাজবুল ইসলাম, সহ-সভাপতি বিমল সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক ওয়াজেদ আলী খানঁ।

সম্মেলন পরিচালনা করেন বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ ও উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বাবু।

spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
আজকের রাজশাহী
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

বিনোদন

- Advertisment -spot_img

বিশেষ প্রতিবেদন

error: Content is protected !!

Discover more from News Rajshahi 24

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading