2.3 C
New York
সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
spot_img

বাগমারায় বিএনপির সভাপতির হামলায় আওয়ামী লীগ কর্মী জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর বাগমারায় প্রভাবশালী এক আওয়ামীলীগ নেতার ইন্দনে হাফিজুর রহমান (৩৮) নামের এক আওয়ামীলীগ কর্মীকে পিটিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ওর্য়াড বিএনপি’র সভাপতির বিরুদ্ধে। খবর পেয়ে বাগমারা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত আওয়ামীলীগ কর্মী হাফিজুর রহমানকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। ওই ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের বীরকয়া গ্রামের বটতলা বাজারে। ঘটনার পর থেকেই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের বীরকয়া গ্রামের ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি আবু সায়েম বাপ্পীর সাথে একই গ্রামের বিভিন্ন আওয়ামীলীগ পন্থী ব্যক্তিদের দ্বন্দ্ব চলে আসছে। ওই দ্বন্দ্বের জের ধরে গত মঙ্গল (২১ মার্চ) রাত ১০ টার দিকে বীরকয়া বটতলী বাজারে আওয়ামীলীগ কর্মী হাফিজুর রহমানকে দেখতে পেয়ে ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি আবু সায়েম তার লোকজন নুর ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম, হাসান আলী ও সিদ্দীককে সাথে নিয়ে হাফিজুর রহমানকে বাজারের কাউছারের চায়ের দোকানে ধরে নিয়ে যায়। সেখানে উপরোক্ত ব্যক্তিদ্বয়সহ আরো ৮/১০ জন মিলে কিল, ঘুষি, লাথি মারে এবং মাটিতে ফেলে খুঁচে জখম করে আটকে রাখে। খবর পেয়ে বাগমারা থানার পুলিশ রাতেই বটতলী বাজারে অভিযান চালিয়ে আহত হাফিজুরকে উদ্ধার করে।

আহত হাফিজুর রহমানের অভিযোগ, আবু সায়েম বিএপি’র সভাপতি হয়েও তিনি বর্তমান সময়ে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের সব সময় মারধর করেন। বর্তমানে বিএনপি’র নেতা সায়েমের বিরুদ্ধে মারামারি ও ডাঙ্গাহাঙ্গার অভিযোগে বাগমারা থানা ও রাজশাহীর আদালতে ৬ থেকে ৭ টি মামলা রয়েছে। তিনি একাধিক মামলার পুলিশের চার্জসীটভুক্ত আসামী বলে তিনি জানিয়েছেন। সায়েম কেন এমন কর্মকান্ড করেন এমন প্রশ্নের জবাবে হাফিজুর রহমান বলেন, উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের এক প্রভাবশালী নেতার ছত্রছায়ায় তিনি বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে থাকেন। নেতার প্রভাবের কারনে পুলিশও কোন ব্যবস্থা নিতে পারছেন। তিনি অবিলম্বে বিএনপি’’র নেতা আবু সায়েম বাপ্পীকে আটক করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান।

বিষয়টি জানার জন্য বিএনপি’র ওয়ার্ড সভাপতি আবু সায়েম বাপ্পীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি তার মুঠোফোনটি রিসিভ করেন নি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান এবং আহত হাফিজুর রহমানকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করেন। থানায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলেই তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

spot_imgspot_img
রাজশাহী বিভাগ

সর্বশেষ খবর

- Advertisment -spot_img

সর্বাধিক জনপ্রিয়

error: Content is protected !!

Discover more from News Rajshahi 24

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading