-0.8 C
New York
বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪
spot_img

শিক্ষিকাকে অনৈতিক প্রস্তাব! রাণীনগর নৈশ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সোয়ায়েব কারাগারে

শিক্ষিকাকে অনৈতিক প্রস্তাব ও বিভিন্ন সময় অশালিন কথাবার্তা বলে উত্যাক্ত করার অভিযোগে মোঃ সোয়ায়েব আলীর (৪৫) জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেছেন বিজ্ঞ আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে কারগারে প্রেরণের নির্দেশ দেয়া হয়। এর আগে বুধবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

জানা গেছে, দীর্ঘ ৫/৬ মাস যাবত সহকর্মী শিক্ষিকাকে অনৈতিক প্রস্তাব ও বিভিন্ন সময় অশালিন কথাবার্তা বলে উত্যাক্ত করার অভিযোগে মোঃ সোয়ায়েব আলী (৪৫) নামের এক (কৃষি) শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি রাজশাহী মহানগীর বোয়ালিয়া থানার রাণীনগর নৈশ উচ্চ বিদ্যালয়ের কৃষি শিক্ষক। তার পিতার নাম মৃত শামসুদ্দিন, বাড়ী চাপাইনবাবগঞ্জে। তবে তিনি বর্তমানে মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার মিরেটচক এলাকার বাসিন্দা।

মামলার বরাত ও শিক্ষিকার বক্তব্যে জানা গেছে, একই স্কুলের কৃষি শিক্ষক সোয়ায়েব আলী দীর্ঘ ৫/৬ মাস যাবত লাগাতার ওই শিক্ষিকাকে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছে। এছাড়াও সে বিভিন্ন সময় অশালিন কথাবার্তা বলে মানুষিক নির্যাতন করেন তিনি। বারবার নিষেধ করা সত্বেও তার পরিবর্তন হয়নি। এরই ধারাবাহিতায় ওই ভুক্তভোগী শিক্ষিকা তার বিরুদ্ধে বোয়ালিয়া মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন।

এ নিয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) ও সভাপতির নেতৃত্বে সকল শিক্ষক কর্মচারীর উপস্থিতিতে স্কুলে একটি আপোষ মিমাংসার বৈঠক বসে। কিন্তু সেখানে শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোন প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ না করে উল্টা ভুক্তভোগী শিক্ষিকাকে জিডি প্রত্যাহার করতে ককেজন মিলে চাপ সৃষ্টি করেন। তবে ভুক্তভোগী শিক্ষিকা স্কুলের ওই আপোষ মিমাংসায় অনুরোধ করেন, সোয়ায়েব আলী আর কখনই বিরক্ত করবে না, এই মর্মে একটি লিখিত আপোষ মিমাংসা করা হোক। তার দাবি মানা তো দূরের কথা উল্টা জোটবদ্ধ হয়ে ভূক্তভোগী শিক্ষিকাকে একঘোরে করেন সবাই। অর্থাৎ তার সাথে প্রয়োজন ছাড়া কেউ কোন কথা বলেন না। এমনকি স্কুলের কোন আলোচনা বা মিটিং-এ পর্যন্ত তাকে রাখা হয়না। এছাড়াও পেছনে গুঞ্জন ও কুৎসা রটনায় লিপ্ত রয়েছেন কেউ কেউ। তবে সকল হুমকি নির্যাতন থেকে পিছু হটেন নি ভুক্তভোগী। প্রত্যাহার করেননি জিডি। নিজে বাদী হয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে নারী শিশু নির্যাতণ আইনের ১০ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন শিক্ষিকা। মামলা নং- ৩৬, তাং-২১/১১/২৩। অবশেষে সেই মামলায় বুধবার রাত ১০টার দিকে কৃষি শিক্ষক সোয়ায়েব আলীকে গ্রেফতার করে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ।

জানতে চাইলে বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সোহরাওয়ার্দী জানান, রাণীনগর নৈশ উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকার দায়ের করা মামলায় একই স্কুলের শিক্ষক মোঃ সোয়ায়েব আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

spot_imgspot_img
রাজশাহী বিভাগ

সর্বশেষ খবর

- Advertisment -spot_img

সর্বাধিক জনপ্রিয়

error: Content is protected !!