26.3 C
New York
রবিবার, মে ২৬, ২০২৪
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

পবায় রাতে আ.লীগ কার্যালয়ে হামলার অভিযোগ

নিউজ রাজশাহী ডেস্কঃ রাজশাহীর পবা উপজেলার বালিয়া সেনপুকুরে জয় বাংলা পরিষদের শাখা কার্যালয়ে রাতে হামলা চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ কার্যালয় ভাঙ্গচুরের অভিযোগ উঠেছে। বুধবার রাত ১২ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) কাশিয়াডাঙ্গা থানায় যুবমৈত্রীর যুগ্ন আহব্বায়কসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ১০ থেকে ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে কাশিয়াডাঙ্গা নবগঙ্গা এলাকার মৃত আব্দুল্লাহেল বাকির ছেলে রবিউল ইসলাম।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পবা উপজেলার কাশিয়াডাঙ্গা বালিয়া সেনপুকুর ৫ নং হড়গ্রাম ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের জয় বাংলা পরিষদের শাখা কার্যালয়ের সভাপতি রবিউল ইসলাম। বুধবার রাত ১২ টার দিকে রবিউল, পবা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজায়ানুল কারিম, বাবুসহ ৫ থেকে ৬ জন কার্যালয়ের ভেতরে বসে ছিলেন।

কার্যালয়ের সভাপতি রবিউল ও বাবু সাথে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার হটাৎ রাত ১২ টার দিকে কাশিয়াডাঙ্গা থানার যুবমৈত্রীর ৩ নং যুগ্ন আহব্বায়ক বালিয়া এলাকার মৃত সিদ্দিক চৌকিদারের ছেলে আরিফুল ইসলাম আরিফের নেতৃত্বে হানিফের ছেলে মাসুদ রানা ডালিম, ইয়াসিন আলীর ছেলে জনি, নবগঙ্গা এলাকার মৃত রসুলের ছেলে হুমায়নসহ অজ্ঞাত ১০ থেকে ১৫ জন দেশী অস্ত্র কানতাই, হাতুড়ী, চাপাতি নিয়ে দলবন্ধ হয়ে ওই কার্যালয়ে হামলা চালায়। এসময় এলোপাতাড়ি কানতাই দিয়ে কুপিয়ে কার্যালয়ের চেয়ার টেবিল, বঙ্গবন্ধুর ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙ্গচুর করে। এসময় রবিউল ও তার ব্যবসায়ী পার্টনার বাবুর সাথে তাদের ধস্তা ধস্তির হয়। অল্পের জন্য তারা চাপতির কোপ থেকে রক্ষা পাই। এ ঘটনায় প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগে রবিউল ইসলামের।

রবিউল ইসলাম জানান, কাশিয়াডাঙ্গা থানা যুবমৈত্রীর যুগ্ন আহব্বায়ক আরিফের নেতৃত্বে এর আগেও ২০১৬ সালে হড়গ্রাম ইউনিয়ন আ.লীগের ৩ নং ওয়ার্ডের কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙ্গচুর করে। সেই ঘটনায় ওয়ার্ড আ.লীগ সভাপতি শজাহার মেম্বার মামলা দায়ের করে। সেই মামলা চলমান রয়েছে। এছাড়া গত ৭ অক্টোবর হরিপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আ.লীগের কার্যালয়ে যুবমৈত্রী নেতার নেতৃত্বে হামলা চালিয়ে কার্যালয়ে ভাঙ্গচুর করে। ওই ঘটনায় মাদক সেবন মামলায় তিন জনকে আটক করে পুলিশ।

তিনি আরো বলেন, জমি সংক্রান্ত বিষয় কে কেন্দ্র করে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমাকে ও বাবুকে হত্যার উদ্দেশ্যে মদ সেবন করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়। অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যায় আমরা। কিন্তুু তারা কার্যালয়ে সাইনবোর্ড ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি, বঙ্গবন্ধুর ছবি, এমপি আয়েনের ছবি ভাঙ্গচুর করে।

এ বিষয় কাশিয়াডাঙ্গা থানা যুবমৈত্রীর যুগ্ন আহব্বায়ক আরিফুল ইসলাম বলেন, আমরা ১৪ দলের সাথে যুক্ত আছি। প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুর প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা ও সম্মান রয়েছে। তাদের ছবি ভাঙ্গচুর করিনি আমারা মিথ্যা অভিযোগ করেছে আমাদের বিরুদ্ধে।

এ বিষয় কাশিয়াডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রবিউল ইসলাম বাদি হয়ে থানায় এজাহার দিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
আজকের রাজশাহী
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img

বিনোদন

- Advertisment -spot_img

বিশেষ প্রতিবেদন

error: Content is protected !!

Discover more from News Rajshahi 24

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading